1. admin@bd-journalist.com : বিডি জার্নালিস্ট : বিডি জার্নালিস্ট
  2. miraj20@gmail.com : নিজস্ব প্রতিবেদক : নিজস্ব প্রতিবেদক
  3. commercial.rased@gmail.com : Staff Reporter : Staff Reporter
  4. newuser@mail.com : Staff Reporter : Staff Reporter
শুক্রবার, ২৩ এপ্রিল ২০২১, ১০:৩০ পূর্বাহ্ন

পাবর্ত্য চট্টগ্রামে উপজাতিরা কোটা সুবিধা : ব্যাপক বৈষমের শিকার বাঙ্গালীরা

আরিফুল ইসলাম,রাঙ্গামাটি
  • আপডেট সময় মঙ্গলবার, ৯ মার্চ, ২০২১
[ছবি বাংলাদেশ জার্নালিস্ট ]

পার্বত্য চট্টগ্রাম শান্তি চুক্তির মাধ্যমে পাহাড়ি উপজাতিরা কোটা সুবিধা ভোগ করার পরও তাদের উপরোস্থ শাসকশ্রেণীর বিভিন্ন স্বজনপ্রীতি ও দূর্নীতির /ঘুষের মাধ্যমে স্বজাতিদের নিয়োগ দিয়ে প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া ক্ষমতার অপব্যবহার স্বাধীনদেশে এক নজিরবিহীন বৈষম্য সৃষ্টি করে সরকারের মানখুন্য করেছে জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও বিভিন্ন ক্ষমতাবান পাহাড়ি নেতারা।
শান্তিচুক্তির কারণে পাহাড়ের ক্ষমতা উপজাতিদের হাতে থাকার কারনে আজ এই সাম্প্রদায়িক বৈষম্যের শিকার হলো পাহাড়ে বসবাসরত বাঙ্গালি ও অন্যান্য জনগণ। দেখার কেউ নাই মনে হলো।
আপসোস হয় আজ একই দেশে এত রুপ কেন?
প্রধানমন্ত্রীর নিকট আবেদন আপনি এদের ক্ষমতা অপব্যবহারের জন্য, দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দিয়ে আপনার সরকারের সুমান ধরে রাখুন। সকল সম্প্রদায় জনগণের যোগ্যতার ভিত্তিতে আবার নিয়োগ প্রধান করা সময়ের দাবী।

নিয়োগের ক্ষেত্রে বৈষম্যের নমুনা জানতে বিস্তারিত
খাগড়াছড়ি জেলা পরিষদের অধীনে দীঘিনালা উপজেলায় ২০ জন “প্রজনন স্বাস্থ্য সেবাকর্মী” নিয়োগ করা হয়েছে। কিন্তু সেখানে একজনও বাঙ্গালী নেই।

সবচেয়ে বড় কথা হলো, “১নং কবাখালী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়”(৮ম শ্রেণীতে উন্নীত)এ শুধুমাত্র ৩ জনই বাঙ্গালী আবেদন করেছেন, যার ফলে তালিকা থেকে ওই স্কুলের নামই হারিয়ে গেছে।

অন্যদিকে ছোট মেরুং হাই স্কুল বাঙ্গালী অধ্যুষিত হলেও ২০ কিলোমিটার দূর থেকে পাহাড়ী নিয়োগ দেয়া হয়েছে।

এছাড়া ছোট মেরুং বাজার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ক্যাচমেন্ট এলাকার কোথাও পাহাড়ী না থাকলেও সেখানেও পাহাড়ী নিয়োগ দেয়া হয়েছে। অনাথ আশ্রম আবাসিক উচ্চ বিদ্যালয়ের ক্যাচমেন্ট এলাকা বাঙ্গালী অধ্যুষিত হলেও সেখানেও পাহাড়ী নিয়োগ দেয়া হয়েছে। ২০জনের মধ্যে কী ১জনও যোগ্য বাঙ্গালী নেই!!

এর বাইরে জেলা সদরের ১৩ জনের জনের মধ্যে বাঙ্গালী ১জন, লক্ষ্মীছড়িতে ৮ জনের সবাই উপজাতি, মানিকছড়িতে ৯ জনের মধ্যে বাঙ্গালী ৩জন, রামগড়ে ১০ জনের মধ্যে বাঙ্গালী ১ জন, মাটিরাঙ্গায় ১০ জনের মধ্যে বাঙ্গালী ৪জন, গুইমারায় ৮ জনের সবাই উপজাতি, মহালছড়িতে ১২ জনের মধ্যে ১জন বাঙ্গালী, পানছড়িতে ১০ জনের মধ্যে ১জন বাঙ্গালী নিয়োগ পেয়েছেন। মোট হিসেবে জেলায় ১০০ জনে বাঙ্গালী নিয়োগ পেলো ১১ জন।

এ নজিরবিহীন বৈষমের নিয়োগ অতিস্বত্ত্বর বাতিল করে আবার নিয়োগদান করতে সরকারের প্রতি জোর আবেদন করা হলো। আর এর সাথে জড়িত থাকা সকল দূর্নীতিবাজদের অপসারণের জন্য প্রধানমন্ত্রী নিজে প্রদক্ষেপ নিয়ে সকলের নিকট স্বচ্চতার উদাহারণ সৃষ্টিকরে জনগণের মনে স্বস্তি আনতে অনুরোধ রইল।বং আগামীতে সকল নিয়োগ প্রক্রিয়া নিরপেক্ষতার জন্য বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর মাধ্যমে নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন করার জন্য সরকারের প্রতি আবেদন। এতে সকল সম্প্রদায় জনগোষ্ঠী সরকারের প্রতি কৃতজ্ঞতা ও সন্তোষ্টি প্রকাশ করবে।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2021 bd-journalist.com
Theme Customized By newspadma.Com