1. admin@bd-journalist.com : বিডি জার্নালিস্ট : বিডি জার্নালিস্ট
  2. miraj20@gmail.com : নিজস্ব প্রতিবেদক : নিজস্ব প্রতিবেদক
  3. commercial.rased@gmail.com : Staff Reporter : Staff Reporter
  4. newuser@mail.com : Staff Reporter : Staff Reporter
রবিবার, ১৩ জুন ২০২১, ০৮:২২ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :

বরকলের হরীনা বাজারের ৩০টিও দোকান বসতবাড়ি পুড়ে ছাই ;ক্ষতির পরিমান প্রায় ৫ কোটি

মো আরিফুল ইসলাম,রাঙ্গামাটি
  • আপডেট সময় সোমবার, ৩১ মে, ২০২১

পার্বত্য রাঙ্গামাটি জেলার বরকল উপজেলাধীন ভুষনছড়া ইউনিয়নের ব্যবসার প্রাণকেন্দ্র হরীনা বাজারটি ৩১শে মে রোজ সোমবার রাত আনুমানিক ১ টা নাগাদ আগুন লেগে ৩০টি দোকান ও বসতবাড়ি পুড়ে যায়।

বরকল উপজেলাতে কোন রকম ফায়ার সার্ভিস ব্যাবস্থা না থাকার কারনে রাত ১ টা থেকে সকাল ৮ টা পর্যন্ত এক নাগারে জ্বলেছে বাজারের দোকানগুলো।প্রায় ৫থেকে ৬ কোটি টাকার ওপড়ে ক্ষয় ক্ষতি হয়েছে বলে জানান স্থানীয়রা।
পার্শবর্তী আমতলা, ভুষনছড়া ও এরাবুনিয়া গ্রামগুলো থেকে লোকজন এগিয়ে না আসলে পুরো বাজারই নিশ্চিহ্ন হয়ে যেত।মুদি মালের দোকানের পাশে থাকা আরর্জনা কিংবা বেকারী হতে আগুনের সুত্রপাত বলে মনে করছেন ক্ষতিগ্রস্থরা।

ক্ষতিগ্রস্থ দোকান ব্যাবসায়ী সাজু জানান,আমাদের দোকানগুলো পুড়ে যাওয়াতে আমরা ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছি।আগুন নিয়ন্ত্রণে প্রয়োজনীয় সরঞ্জামাদি না থাকায় এবং ফায়ারসার্ভিস সুবিধা না থাকায় এত বড় দুর্ঘটনা ঘটেছে বলে তিনি মন্তব্য করেন।

এ বিষয়ে বাজার কমিটি সভাপতি আব্দুল মান্নান জানান,এটা হরীনা বাজারের জন্য একটি অভাবনীয় ক্ষতি।দোকানিরা সব মিলিয়ে প্রায় ৫-৬ কোটি টাকার মত ক্ষয় ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছেন।অগ্নিনির্বাপক কোন ব্যবস্থা বা ফায়ার সার্ভিস সুবিধা না থাকায় আগুন নিয়ন্ত্রনে আনতে অনেক বেগ পেতে হয়েছে।

ইউপি চেয়ারম্যান মো মামুনর রশিদ জানান,অগ্নিকান্ডটি হরীনা বাজারের ব্যাবসায়ীদের চরম ক্ষতিসাধন করেছেন।৩০ টি দোকান ও বসত বাড়ি পুড়ে নিশ্চিহ্ন হয়ে গেছে।আমরা ইউনিয়ন পরিষদ থেকে সাধ্যমত এদের পাশে থাকতে চেষ্টা করছি।খু্ব শীঘ্রই এদের সহায়তা প্রদান করা হবে।

ঘটনার পরপরই সকাল বেলা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন রাঙ্গামাটি জেলা পরিষদের সদস্য সবির কুমার চাকমা, বরকল উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো জুয়েল রানা এবং ভুষনছড়া ইউপি চেয়ারম্যান মো মামুনর রশিদ।এছাড়া ঘটনার রাত থেকেই উক্ত ঘটনাস্থলে উপস্থিত ছিলেন ভুষনছড়া ইউনিয়ন পরিষদের ইউপি সদস্য মো আব্দুল জলিল,হরীনা বাজার কমিটির সভাপতি আব্দুল মান্নান,সাধারন সম্পাদক সাইফুল ইসলাম মনির, বিজিবি সদস্যসহ, ডিজিএফআইয়ের দায়িত্বরত সদস্যসহ আরো অনেকে।একসময়ে ইউএনও কতৃক ক্ষতিগ্রস্থ ৩০ পরিবারকে তিন হাজার করে আর্থিক সহায়তা দেয়া হয় এবং জেলাপরিষদ থেকে সবির কুমার চাকমার উদ্যোগে কম্বল দেয়া হয়।খুব শীঘ্রই জেলা পরিষদ থেকে ক্ষতিগ্রস্থদের সহায়তা করা হবেন বলে আশ্বস্ত করেন জেলা পরিষদ সদস্য।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2021 bd-journalist.com
Theme Customized By newspadma.Com